সুখবিলাসী উপন্যাসের পাঠ-প্রতিক্রিয়া
আগামী লাইভ

আলম সিদ্দিকীর “সুখবিলাসী” ভালো লাগার মত একটি উপন্যাস। লেখক এর উপন্যাস হিসেবে এটি প্রথম বই। উপন্যাসটি পড়ে তা মনে হয়নি একবারও। অসম্ভব ভাল লেখনী। লেখক, প্রবাসজীবনে থেকে নিজ জন্মভূমির জন্য যে ভালোবাসার আকুতি তা উপন্যাসটিতে খুব জীবন্ত ভাবে ফুঁটিয়ে তুলেছেন।

অনেকগুলো চরিত্রের মধ্যে ফিয়োনা চরিত্রটিকে অসাধারণ লেগেছে। বাংলাদেশে না জন্মিয়েও যে, মা-বাবার জন্মস্থান কে ভালোবাসা এবং একজন সত্যি কারের বাঙালি মেয়ে হয়ে নিউইয়র্কে বেড়ে ওঠা সত্যিই অনন্যসাধারণ ঘটনা।সত্যি কারের প্রেম ফিয়োনার মধ্যেই দেখা গেছে। ভালোবেসে বাবা-মা কে ছেড়ে বাংলাদেশে আসা একটি বিরল ঘটনা ছিল। শেষ পর্যন্ত আর মা-বাবার কাছে ফিরে যাওয়া হয়নি ফিয়োনার। গল্পের প্রেক্ষাপট ছিল বিংশ শতাব্দীর। রহস্য উপন্যাস পড়তে গিয়ে, প্রায় শেষ অবধি রহস্য খুঁজে না পাওয়াটা ছিল এক বড় রহস্য।

বারো ভূঁইয়া, সুফি সাধকের পদধুলিতে ঐতিহ্যপূর্ণ পূর্ব বাংলার রাজধানী সোনারগাঁও, পানাম সিটির ঐতিহ্যের মোহনীয় বর্ণনা পাওয়া যায় উপন্যাসটিতে।পড়তে পড়তে মন চলে যায় সেখানে।লেখকের লেখায় উপমার শৈল্পিকতা, নান্দনিকতা চোখে পড়ার মতো। যেমন- “মনের আকাশে মহাপ্রলয়ের পর সূর্যমামা হাজারো অভিমান ভেঙ্গে লজ্জা কাতুরে মুখ তুলে উঁকি দিয়েছে যখন, আর আমি সেই আলো গায়ে মেখে মনের স্যাতসেঁতে ভাবটা দূর করার চেষ্টা করছি, তখনই আবার নতুন করে মেঘরাশি ছুঁড়ে দিলেন সাদিয়া আন্টি।”

ফিয়োনা চরিত্রটি সত্যিই কোমল ও মানবিকতায় ভরা। হোয়াইট স্টোন ব্রিজের নিচের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখতে গিয়ে এভাবেই কল্পনা করেছেন- “নদীর দুধারের গাছপালা, ছোট বড় বিল্ডিং সবকিছু একসমান মনে হচ্ছে। আসলে কি সব সমান ? উপর থেকে মানুষদের বাহ্যিকভাবে সমান মনে হয়। বস্তুত সমাজে মানুষেরা সবাই সমান হলেও কি ব্যবধান তৈরি হচ্ছে না ? কারা এই উঁচু-নিচু, ধনী-গরীব ইত্যাদি ব্যবধান করছে ? কেন করছে ? তারা কি একবারও ভাবে না যে সবাইকে একদিন একইভাবে একই মাটিতে শায়িত হতে হবে ।”
নাহিমের বাবা অনেক কষ্টে, অনেক আশায় ছেলেকে উচ্চশিক্ষার জন্য আমেরিকায় পাঠান। ছেলে দেশে ফিরে এসে তার মুখ উজ্জ্বল করবে, দেশের সেবা করবে এই আশায়। নাহিমের বাবার স্বপ্নভঙ্গের এক চাঞ্চল্যকর, বেদনাবিধুর কাহিনী নিয়ে উপন্যাসের গল্প এগিয়ে চলেছে; যা পাঠকদের পুলকিত করবে। উপন্যাসিক যে একজন পুরোদস্তুর কবি, তা মাঝে মাঝেই বুঝা যাচ্ছিল এবং তা এক নতুন মাত্রা যোগ করবে পাঠকের মনে। যেমন- “জল গড়িয়ে জলের কাছে যায়, শিশুর যেমন শান্তি আর সুখ তার মায়।”

সর্বোপরি- প্রবাস জীবনের বাস্তবতা?মাটি মানুষের প্রতি ভালোবাসা, হিংসুক মনের হিংস্রতা, স্বপ্নভঙ্গ, কিছুটা রহস্য নিয়ে, অসম্ভব ভালো একটি উপন্যাস এই “সুখবিলাসী”। প্রিয় লেখক আলম সিদ্দিকী কে অসংখ্য ধন্যবাদ সুন্দর একটি উপন্যাস উপহার দেয়ার জন্য।

গ্রন্থ : সুখবিলাসী
লেখক : আলম সিদ্দিকী
ধরণ : উপন্যাস
প্রকাশকঃ কথাপ্রকাশ,
প্রচ্ছদঃ আনিসুজ্জামান সোহেল
মুদ্রিত মূল্য ২০০ টাকা ।

-আবু সায়েম তুহিন

মন্তব্য করুন